Birbhum Mystery Surrounds After Dead Bodies Of Three Years Daughter Child And Old Man Found At Several Places


গোপাল চট্টোপাধ্যায়, শান্তিনিকেতন ও মুরারই : বীরভূমে জোড়া রহস্যমৃত্যু। শান্তিনিকেতন ও মুরারই থানা এলাকা থেকে যথাক্রমে শিশুকন্যা ও প্রৌঢ়ের মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল।

শান্তিনিকেতনের পারুলডাঙায় ২ দিন নিখোঁজ থাকার পর পুকুর থেকে উদ্ধার হল তিনবছরের শিশুকন্যার দেহ। নাম পল্লবী মুর্মু। গত ২৩ সেপ্টেম্বর সকাল দশটা থেকে নিখোঁজ ছিল সে। শান্তিনিকেতন থানায় সেইমতো নিখোঁজের অভিযোগ দায়ের করে পরিবার। এর পর গতকাল সন্ধ্যায় খবর পাওয়া যায় গ্রামের বাইরে পুকুরে একটি মৃতদেহ ভাসছে। পরিবারের লোকজন গিয়ে দেখেন, তাঁদের বাড়ির মেয়েটির দেহ ভাসছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় শান্তিনিকেতন থানার পুলিশ। 

দীর্ঘক্ষণ ধরে মৃতদেহ জলেই পড়েছিল। পরিবার ও পাড়া-প্রতিবেশীর দাবি ছিল, পুলিশ কুকুর আনার। সেইমতো রাত দশটায় বোলপুরে পারুলডাঙা গ্রামে নিয়ে আসা হয় পুলিশ কুকুর। সঙ্গে বিশাল পুলিশবাহিনী। পরিবারের দাবি, এই ঘটনার সঙ্গে যে বা যারা জড়িত রয়েছে তাদের কঠোরতম শাস্তি দিতে হবে। পুলিশ তদন্ত করে দেখুক কারা দোষি। 

আরও পড়ুন ; শালিমারে ব্যবসায়ীর রহস্যমৃত্যু, মানসিক অবসাদগ্রস্ত হয়ে আত্মঘাতী, অনুমান পুলিশের

অন্যদিকে, দু’দিন নিখোঁজ থাকার পর পরিত্যক্ত খাদানের পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার হল মুরারইয়ের রাজগ্রামের এক ব্যবসায়ীর মৃতদেহ। নাম  রাজকুমার ভকত (৫৪)। রাজগ্রাম সংলগ্ন এলাকার একটি পরিত্যক্ত পাথর খাদানের পুকুর থেকে তাঁর মৃতদেহটি উদ্ধার হয় । 

আরও পড়ুন ; রহস্যমৃত্যু! স্বাস্থ্যকেন্দ্রের কোয়ার্টার থেকে উদ্ধার মহিলা চিকিৎসকের পচাগলা দেহ

গতকাল সকালে তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন। এর পর আর বাড়ি ফেরেননি। আজ সকালে ওই খাদানের পুকুরে তাঁর মৃতদেহ ভাসতে দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁরা পুলিশে খবর দিলে মুরারই থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে। পুলিশ মৃতদেহটি রামপুরহাট মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে ময়না তদন্তের জন্য পাঠিয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে মুরারই থানার পুলিশ।



Source link