Mamata Delhi Visit: Political Relations And Development Relations Are Not Same, The Development Of The State Is The Development Of The Center, Said Mamata After Meeting With Modi


নয়াদিল্লি: ‘রাজনৈতিক মতাদর্শগত পার্থক্য থাকবেই, কিন্তু তার জন্য কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত কাম্য নয়।’ দিল্লিতে (Delhi) প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Narendra Modi) সঙ্গে বৈঠক সেরে বেরিয়ে এমনটাই মন্তব্য করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। গত পরশু অর্থাৎ সোমবার দিল্লি (Delhi) উড়ে গিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। বুধবার বিকেল ৫ টায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) সঙ্গে বৈঠক সারেন মুখ্যমন্ত্রী (CM Mamata Banerjee)। এ দিন বিএসএফের (BSF) এক্তিয়ার ইস্যুতে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। আলোচনা হয়েছে রাজ্যের নানা দাবি দাওয়া নিয়েও। বৈঠকে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি রাজ্যের আগামী শিল্প সম্মেলনে মোদিকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মমতা। 

এ দিন বৈঠক সেরে বেরিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী (West Bengal CM Mamata Banerjee)। সেখানে তিনি কেন্দ্র-রাজ্য সম্পর্কের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, ‘রাজনৈতিক মতাদর্শগত পার্থক্য থাকবেই। কিন্তু তার জন্য কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত কাম্য নয়। রাজনৈতিক সম্পর্ক ও উন্নয়ন-সম্পর্ক এক নয়।’ মুখ্যমন্ত্রীর (CM Mamata Banerjee) কথায়, ‘উন্নয়নের ক্ষেত্রে কেন্দ্র-রাজ্য একসঙ্গে কাজ করা উচিত। রাজ্যের উন্নতি হলেই কেন্দ্রের উন্নতি হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘রাজ্যের কিছু বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে, বিএসএফ-এর (BSF) এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়েও কথা হয়েছে। রাজ্যের আইনশৃঙ্খলার সঙ্গে সংঘাতের পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে। বিএসএফ গুলি চালাচ্ছে। তাঁর কথায়, ‘সীমান্ত সামলানো বিএসএফের (BSF) কাজ। রাজ্যের সাহায্য চাইলে রাজ্য সাহায্য করতে প্রস্তুত। যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় আঘাত করা অনুচিত।’ তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর, দ্বিতীয়বার দিল্লি সফর। চারমাসের মধ্যে দ্বিতীয়বার নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

আরও পড়ুন: শিল্প সম্মেলনের উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ করেছি, উনি গ্রহণ করেছেন, বৈঠক শেষে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী

দিল্লিযাত্রার আগে বিএসএফের (BSF) এক্তিয়ার বৃদ্ধির বিষয়ে সরব হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী (CM Mamata Banerjee)। তিনি বলেছিলেন, বিএসএফ আমার শত্রু নয়। বিজেপি যেভাবে মনে করছে, বিএসএফ মানে বিজেপি সেফ! এটা ঠিক নয়।

বাংলায় BSF-এর কর্মপরিধি ১৫ কিলোমিটার থেকে বাড়িয়ে ৫০ কিলোমিটার করেছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক (Home Ministry)। এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সরব হয়েছে তৃণমূল(TMC)। রাজ্য বিধানসভায় বিএসএফের কর্মক্ষেত্রের পরিধি বাড়ানোর বিরুদ্ধে প্রস্তাব পাস করিয়েছে তারা। পাল্টা বিজেপির (BJP) প্রশ্ন, বিএসএফ-এর কর্মপরিধি বাড়লে তৃণমূলের (TMC) আপত্তি কোথায়? এই প্রেক্ষাপটেই দিল্লি সফরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানালেন, বুধবার নরেন্দ্র মোদির (Narendra Modi) সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী (CM Mamata Banerjee) বলেন, ‘ বিএসএফ মানে আমার শত্রু নয়, কিন্তু বিজেপি মনে করছে যেন বিএসএফ নামে বিজেপি সেফ, সেটা নয়, প্রত্যেকটা কেন্দ্রীয় সংস্থার নিজস্বতা আছে, এরা কেন্দ্রীয় সংস্থাগুলিকে কাজে লাগাচ্ছে, জোর করে এলাকা দখল করতে চাইছে, সেটা উচিত নয়, এটা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে হবে, পরশু দিন সময় দিয়েছেন’ 

BSF-এর কর্মপরিধি বাড়ানোর সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে, চলতি মাসের শুরুকে বিধানসভায় প্রস্তাব পাস করে কংগ্রেস শাসিত পাঞ্জাব সরকার (Panjab Government)। এই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি জানান পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি। একই পথে হেঁটেছে তৃণমূল সরকারও। এরই মধ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (CM Mamata Banerjee) হাত ধরে, দিল্লিতে তৃণমূলে (TMC) যোগ দিলেন কীর্তি আজাদ, অশোক তনওয়ার এবং পবন বর্মা। সব মিলিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি সফরে, এই যোগদান ঘিরে সরগরম রাজধানীর রাজনীতি।



Source link