Rafiath Rashid Mithila Urges Bangladesh Indian People To Stop This Unrest Situation In Name Of Religion


কলকাতা: দুর্গাপুজোয় বাংলাদেশে মণ্ডপ ও মন্দিরে ভাঙচুরের ঘটনা নিয়ে সরব হয়েছে ভারত-বাংলাদেশের নানা মহল। হিংসার ঘটনায় ক্ষোভ উগরে দিয়ে সরব হচ্ছেন দুই দেশের অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও। এবার এই হিংসার ঘটনা নিয়ে সরব হলেন অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশিদ মিথিলা। ওপার বাংলারই অভিনেত্রী এখন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ঘরণি। বাংলাদেশের হিংসা থামাতে আর্জি জানিয়েছেন তিনি।               

সোশ‍্যাল মিডিয়ায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে সৃজিত-জায়া লিখেছেন, “ধর্মের নামে রাহাজানি বন্ধ হোক। ঘৃণার ব্যবসা বন্ধ হোক। সবার উপর মানুষ, মানবতা সত্য হোক। ভবিষ্যত প্রজন্মের সুন্দর জীবনের জন্য একটি শান্তিপূর্ণ পৃথিবী গড়ার দায়িত্ব আমাদেরই।”         

নবমীর দিন ওপার বাংলার কুমিল্লাতে মণ্ডপে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে দুর্গাপ্রতিমা।  রবিবার রংপুরের পীরগঞ্জেও পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে হিন্দুদের দুটি গ্রাম, এমনই অভিযোগ সামনে এসেছে। পরবর্তীতে আরেকটি পোস্টে তিনি লেখেন, “এটি খুব দুঃখজনক কীভাবে মুসলমান এবং হিন্দু, বাংলাদেশী এবং ভারতীয়রা একাধিক পোস্টের মাধ্যমে ঘৃণা ও নেতিবাচকতা ছড়িয়ে দিচ্ছেন। পৃথিবীতে মানুষের বেঁচে থাকার মূল বিষয় হল ধৈর্য, শান্তি এবং সম্প্রীতি। একটি সুন্দর বিশ্বের জন্য সেই চেষ্টা করা উচিত আমাদের। অন্তত আমাদের আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য।” 

অন্যদিকে, সোশাল মিডিয়ায় গর্জে উঠলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। বাংলাদেশের হিংসার ঘটনা নিয়ে জয়া এদিন ফেসবুকে নবারুণ ভট্টাচার্যের বিখ্যাত একটি কবিতা নিয়েই প্রতিবাদের সুর চড়িয়েছেন। বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক হিংসার নিন্দা করে তিনি লিখেছেন,‘এই মৃত্যু উপত্যকা আমার দেশ না, এই জল্লাদের উল্লাসমঞ্চ আমার দেশ না, এই বিস্তীর্ণ শ্মশান আমার দেশ না, এই রক্তস্নাত কসাইখানা আমার দেশ না।’            

অভিনেত্রী তাঁর নিজের দেশে এই অশান্ত পরিস্থিতি নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়ে ফেসবুকে প্রোফাইল পিকচারও সরিয়ে দিয়েছেন।    

 



Source link